Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

সিটিজেন চার্টার

 

ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১

গ্রাহক সেবা নির্দেশিকা

 

পবিসের নামঃ ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১

ঠিকানাঃ মুক্তাগাছা, ময়মনসিংহ

 

  ফোন নম্বর সমুহঃ

 

           সদর দপ্তরঃ-

                                    

ক্রমিক নং

ব্যবহৃত দপ্তরের নাম

 মোবাইল ফোন নম্বর

জেনারেল ম্যানেজার, মপবিস-১

০১৭৬৯৪০০০৫১

এজিএম (সদস্য সেবা )

০১৭৬৯৪০০৬০৬

এজিএম (নিপর) সদর দপ্তর

০১৭৬৯৪০০৬০৭

এজিএম (সাঃ সেবা )

০১৭৬৯৪০০৬০৮

এজিএম (অর্থ)

০১৭৬৯৪০০৬০৯

সদর দপ্তর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯০

খামার বাজার অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯১

বটতলা অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯২

রহমতপুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৩

১০

চেচুয়াবাজার অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৪

 

মধুপুর জোনাল অফিসঃ-

 

ক্রমিক নং

ব্যবহৃত দপ্তরের নাম

মোবাইল ফোন নম্বর

ডিজিএম মধুপুর জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০২০২

এজিএম (নিপর)মধুপুর জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০৬১০

মধুপুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৫

ঘাটাইল অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৬

সাগরদিঘীঅভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৭

ধলাপাড়া অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৮

 

ফুলবাড়ীয়া জোনাল অফিসঃ-

 

ক্রমিক নং

ব্যবহৃত দপ্তরের নাম

 মোবাইল ফোন নম্বর

ডিজিএম ফুলবাড়ীয়া জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০২০৩

এজিএম (নিপর) ফুলবাড়ীয়া জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০৬১২

ফুলবাড়ীয়া অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০০

কেশবগঞ্জ অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০১

আছিমঅভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০২

চুরখাই অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০৩

 

গোপালপুর জোনাল অফিসঃ-

 

ক্রমিক নং

ব্যবহৃত দপ্তরের নাম

 মোবাইল ফোন নম্বর

ডিজিএম গোপালপুর জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০২০৪

এজিএম (নিপর)গোপালপুর জোনাল অফিস

০১৭৬৯৪০০৬১১

গোপালপুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০৪

সাহাপুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০৫

নলীনঅভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০৬

ভূয়াপুর অভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৫০৭

 

 

  ধনবাড়ী বিলিং এরিয়া অফিসঃ-

 

ক্রমিক নং

ব্যবহৃত দপ্তরের নাম

 মোবাইল ফোন নম্বর

এজিএম (নিপর) ধনবাড়ী বিলিং এরিয়া অফিস

০১৭৬৯৪০০৬১৩

ধনবাড়ী  এরিয়া অফিসঅভিযোগ কেন্দ্র

০১৭৬৯৪০১৪৯৯

 

 

 

 

ফ্যাক্স নং- ০৯০২৮-৭৫২০৯

ইমেইল-gmmpbs1@gmail.com

 

 

‘‘এক অবস্থানে সেবা কেন্দ্র’’

 

বিদ্যুৎ সরবরাহ দপ্তরে এক অবস্থানে সেবা’’ এ নুতন বিদ্যুৎ সংযোগ ,বিদ্যুৎ বিভ্রাট/মিটার সংক্রান্ত অভিযোগ,বিল পরিশোধের ব্যবস্থা সহ সকল ধরনের অভিযোগ জানানো যাবে এবং এতদসংক্রান্ত বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাবে।

 

নতুন সংযোগ গ্রহনঃ

 

  • ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ থেকে নতুন সংযোগের আবেদন পত্র পাওয়া যাবে।
  • আবেদন পত্রটি যথাযথভাবে পূরণকরে নির্ধারিত আবেদন ফি নির্দিষ্ট গ্রাহক কেন্দ্র/দপ্তরে জমা প্রদানকরে জমা রশিদ ও প্রয়োজনীয় দলিলাদিসহ  ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ এ জমা করলে আপনাকে একটি নিবন্ধন নম্বরসহ পরবর্তী আগমনের তারিখ জানানো হবে।

 

  • পরবতী আগমনের তারিখে যোগাযোগ করলে আপনাকে ডিমান্ড নোট ও প্রাক্কলন ইস্যু করা হবে। ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ সংলগ্ন নির্ধারিত শাখায়/দপ্তরে   ডিমান্ড নোটের উল্লেখিত টাকা জমা পূর্বক জমার রশিদ প্রদর্শন করলে সংযোগ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। বিদ্যুৎ সংস্থা কর্তৃক সরবরাহকৃত অথবা বিদ্যুৎ সংস্থাকর্তৃক অনুমোদিত ক্রয়কৃত মিটার  গ্রাহক জমা দিলে মিটার কার্ডসহ ১৫ দিনের মধ্যে গ্রাহকের আঙ্গিনায় স্থাপন করা হবে। যদি  সংযোগ প্রদান সম্ভব না হয় তবে তার কারন জানিয়ে আপনাকে একটি পত্র দেয়া হবে।

 

  • পরবর্তী মাসের বিলিং সাইকেল অনুযায়ী গ্রাহকের প্রথম মাসের বিল জারী করা হবে।

 

  • ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ থেকে নতুন সংযোগের ও এতদসংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী সম্বলিত একটি পুস্তিকা প্রয়োজনবোধে নির্ধারিত মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে সংগ্রহ করা যাবে।

 

বিল সংক্রান্ত অভিযোগঃ

 

বিল সংক্রান্ত যে কোন অভিযোগঃ যেমন চলতি মাসের বিল পাওয়া যায়নি, বকেয়া বিল, অতিরিক্ত বিল ইত্যাদির জন্য ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ এ যোগাযোগ করলে তাৎক্ষনিক সমাধান সম্ভব হলে তা নিষ্পত্তি করা হবে। অন্যথায় একটি নিবন্ধন নম্বর দিয়ে পরবর্তী যোগাযোগের সময় জানিয়ে দেয়া হবে এবং ৭ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

  • ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’ সংলগ্ন ব্যাংক বুথ/ নির্ধারিত ব্যাংক/দপ্তর এ গ্রাহক বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

 

  • প্রিমেন্ট মিটারিং এর আওতাভুক্ত বেন্ডিং সেন্টারে গিয়ে Card Key No.সহ স্লিপ সংগ্রহের মাধ্যমে আগাম বিল পরিশোধ    Recearge করা যাবে।

 

  • ইলেকট্রনিক বিল পে এর আওতাভূক্ত এলাকায় Point of Sale এর মাধ্যমে বিল পরিশোধ করা যাবে।

 

বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগঃ

 

বিদ্যুৎ সরবরাহ ইউনিটের নির্দিষ্ট অভিযোগ কেন্দ্র অথবা ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’  এ আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের অভিযোগ জানানো হলে আপনাকে অভিযোগ নম্বর ও নিষ্পত্তির সম্ভাব্য সময় জানিয়ে দেয়া হবে। অভিযোগ নম্বরের ক্রমানুসারে আপনার বিদ্যুৎ বিভ্রাট দুরীভূত করার লক্ষ্যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে নিষ্পত্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন কোন ক্ষেত্রে যদি নির্ধারিত সময়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দুরীভূত করা সম্ভব না হয় , তার কারন গ্রাহককে অবহিত করা হবে।

 

নতুন সংযোগের জন্য দলিলাদিঃ

 

নতুন সংযোগের আবেদন পত্রের সাথে নিম্নোক্ত দালিলাদি সংযুক্ত / দাখিল করতে হবেঃ

  • সংযোগ গ্রহনকারীর পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি সত্যায়িত রঙ্গিন ছবি।

 

  • জমির মালিকানা দলিলের সত্যায়িত কপি।

 

  • সিটি কর্পোরেশন/ নগর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ/ পৌরসভা স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাড়ীর অনুমোদিত সত্যায়িত নক্সা এবং অথবা সিটি কর্পোরেশন /পৌরসভা/স্থানীয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নাম জারীসহ হোল্ডিং নম্বর এর সত্যায়িত কপি ও দলিল অথবা দাগ নম্বর ,খতিয়ান নম্বর জমির দলিল   কমিশনারের সার্টিফিকেট (যেখানে নক্সা অনুমোদন নাই)।

 

  • লোড চাহিদার পরিমান।
  • জমি/ ভবনের ভাড়ার (যদি প্রযোজ্য হয়) দলিল।
  • ভাড়ার ক্ষেত্রে মালিকের সম্মতি পত্রের দলিল ও মালিকের মূল দলিলের ফটোকপি।
  • ভোটার আইডি কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি জমা দিতে হবে।
  • পূর্বের কোন সংযোগ থাকলে ঐ সংযোগের বিবরণ ও সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের কপি।
  • অস্থায়ী সংযোগের ক্ষেত্রে বিবরণ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • বৈধ লাইসেন্সধারী কর্তৃক প্রদত্ত ইন্সটলেশন টেস্ট (ওয়ারিং) সার্টিফিকেট।
  • ট্রেড লাইসেন্স (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • সংযোগ স্থানের নির্দেশক নকশা।
  • শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের নিমিত্তে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন।
  • পাওয়ার ফ্যাক্টর ইম্প্রুভমেন্ট প্লান্ট স্থাপন ( শিল্পের ক্ষেত্রে)
  • সার্ভিস লাইনের দৈর্ঘ্য ১০০ ফুটের বেশী হবে না।
  • বহুতল আবাসিক/বানিজ্যিক ভবন নির্মাতা ও মালিকের সাথে ফ্লাট মালিকের চুক্তি নামার সত্যায়িত কপি।

 

  ৫০ কিঃ ওঃ এর  উর্দ্ধে সংযোগের জন্য গ্রাহককে আরও যে দলিলাদি দাখিল করতে হবেঃ

  • সিটি কর্পোরেশন পৌরসভা অথবা সংশিস্নষ্ট হাউজিং কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত বাড়ীর নক্সায় ( সত্যায়িত কপি) উপকেন্দ্রের লে-আউট প্লান।
  • সিংগেল লাইন ডায়াগ্রাম।
  • মিটারিং কক্ষ প্রদানের অঙ্গিকার নামা।
  • উপকেন্দ্রে স্থাপিত সব যন্ত্রপাতির স্পেসিফিকেশন ও টেষ্ট রেজাল্ট এবং বৈদ্যুতিক উপদেষ্টা  ও প্রধান বিদ্যুৎ পরিদর্শকের দপ্তর থেকে প্রদত্ত উপকেন্দ্র সংক্রান্ত ছাড়পত্র।

 

 

 শিল্প কারখানা ও ছয়তলার অধিক ভবনে সংযোগের জন্য গ্রাহককে আর যে দলিলাদি দাখিল করতে হবেঃ

  • পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
  • ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর ছাড়পত্রের কপি।

নতুন সংযোগের জন্য আবেদন ফিঃ

  • বাড়ী/ বানিজ্যিক/দাতব্য প্রৃতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য একক ও দলগত আবেদনের ক্ষেত্রেঃ

ক) একক আবেদনের ক্ষেত্রে-১০০ টাকা

খ) ২ হইতে ৯ জন পর্যন্ত আবেদনের (জন প্রতি) ক্ষেত্রে ১০০ টাকা

গ) ১০ হইতে ২০ জন পর্যমত্ম  গ্রুপ সম্বলিত আবেদনের ক্ষেত্রে (নির্ধারিত) ১৫০০ টাকা

ঘ) ২১ জন ও তদউর্দ্ধের গ্রুপ সম্বলিত আবেদনের ক্ষেত্রে (নির্ধারিত) ২০০০ টাকা

  • সেচ সংযোগের জন্য -২৫০ টাকা
  • যে কোন ধরনের অস্থায়ী সংযোগের জন্য ১৫০০ টাকা
  • উপরের বর্নিত সংযোগ ও শিল্প প্রতিষ্টান ব্যতিত কোন সাময়িক/ স্থায়ী সংযোগের জন্য ১৫০০ টাকা
  • লোড বৃদ্ধির জন্যঃ

ক) ০-১০ কিঃওঃ পর্যন্ত-১০০০ টাকা

খ) ১১-৪৫ কিঃ ওঃ পর্যন্ত২০০০ টাকা

গ) ৪৬ থেকে তদুর্দ্ধ র্যন্ত৫০০০ টাকা

নতুন সংযোগের জন্য জামানতের পরিমানঃ

ক্রমিক নং

গ্রাহক শ্রেণী

লোডের বিবরন/ নিরাপত্তা জামানত নিরপনের পদ্ধতি

নিরাপত্তা জামানত

 

আবাসিক/ বানিজ্যিক/

দাতব্য প্রতিষ্ঠান

০.৫০ কিঃ ওঃ পর্যন্তলোড

৫০০.০০ টাকা

০.৫০ থেকে ১.০ কিঃ ওঃ পর্যন্তলোড

৬০০.০০ টাকা

১.০ থেকে ৫.০ কিঃ ওঃ পর্যন্তলোড

৬০০.০০ + ২০০.০০ প্রতি কিঃ ওঃ অথবা প্রতি ভগ্নাংশের জন্য।

বানিজ্যিক

৫.০ কিঃ ওঃ  এর উর্দ্ধে

সংযুক্ত লোড( কিঃওঃ অথবা কেভিএ X০.৯৫X ৮ ঘন্টা X২৫ দিনX২ মাসXবিদ্যুতের মূল্য হার(টাকা / প্রতি কিঃওঃঘঃ)

শিল্প

 

সংযুক্ত লোড( কিঃওঃ অথবা কেভিএ X০.৯৫X ৮ ঘন্টা X২৫ দিনX২ মাসXবিদ্যুতের মূল্য হার(টাকা / প্রতি কিঃওঃঘঃ)

রাস্তার বাতি

 

৬ মাসের নুন্যতম বিলের সমপরিমান

 

 

অস্থায়ী বিদ্যুৎ সংযোগঃ

সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান , বানিজ্যিক কার্যক্রম এবং নির্মান কাজের নিমিত্তে স্বল্পকালীন সময়ের জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ গ্রহন করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে ২৩০/৪০০ ভোল্ট বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য মূল্যহার শিল্প শ্রেণীর জন্য প্রযোজ্য মূল্য হার হিসাবে গন্য হবে।

    ডিমান্ড চার্জ ও সার্ভিস চার্জ শিল্প শ্রেণীর জন্য প্রযোজ্য হবে।গ্রাহক সংযোগ চার্জ এবং অতিরিক্ত হিসাবে অস্থায়ী সংযোগের সময়েল জন্য দৈনিক ১০ ঘন্টা বিদ্যুৎ ব্যবহারের ভিত্তিতে প্রাক্কলিত বিল জমা দিলে পরবর্তী ৭ দিনের মধ্যে অথবা গ্রাহকের চাহিদার দিন থেকে অস্থায়ী সংযোগ দেয়া হবে। গ্রাহকের জমা অর্থ মাসিক বিদ্যুৎ বিলের সাথে সমন্বিত করা হবে। যদি অস্থায়ী সংযোগ প্রদান করা সম্ভব না হয় তবে তার করান জানিয়ে গ্রাহককে একটি পত্র দেয়া হবে।

লোড পরিবর্তন

  • নতুন পরিবর্তন ফি প্রদান করতে হবে।
  • চুক্তি পরিবর্তন ফি প্রদান করতে হবে।
  • লোড বৃদ্ধির জন্য  প্রযোজ্য অনুযায়ী কিঃ ওঃ প্রতি বিদ্যমান হারে জামানত প্রদান করতে হবে।
  • অতিরিক্ত লোডের জন্য সার্ভিস তার / মিটার বদলানোর প্রয়োজন হলে উক্ত ব্যয় গ্রাহককে বহন করতে হবে।
  • প্রাক্কলন ও জামানতের অর্থ জামাদানের ৭ দিনের মধ্যে লোড বৃদ্ধি কার্যকর করা হবে। যদি লোড বৃদ্ধি করা সম্ভব না হয় তবে তার করান জানিয়ে গ্রাহককে একটি পত্র দেয়া হবে।

গ্রাহকের নাম পরিবর্তন পদ্ধতি

    গ্রাহক ক্রয়সূত্রে/ওয়ারিশসূত্রে / লিজসূত্রে জায়গা বা প্রতিষ্ঠানের মালিক হলে সকল দলিলের সত্যায়িত ফটোকপি ও সর্বশেষ পরিশোধিত বিলের কপিসহ নির্ধারিত ফি জমা করে আবেদন করতে হবে। সরেজমিনে তদমত্ম করে নাম পরিবর্তনের জন্য বিদ্যমান হারে জামানতপ্রদান করতে হবে। গ্রাহক জামানত বাবদ উক্ত বিল নির্ধারিত শাখা /দপ্তরে পরিশোধ করে তার রশিদ দপ্তরে জমা দিলে ৭ দিনের মধ্যে নাম পরিবর্তন কার্যকর করা হবে।

 

 

অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার, মিটারে হস্থক্ষেপ, বাই পাস, বিনাঅনুমোতিতে সংযোগ গ্রহন ইত্যাদি ক্ষেত্রে আইনগত ব্যবস্থাঃ

 

     বিদ্যুৎ আইনের(Electricity Act,1910 & as Amended “The Electricity (Amended) Act, 2006”)৩৯ ধারা অনুসারে এ ক্ষেত্রে নূন্যতম ১বছর হতে ৫ বছর জেল এবং ১০ হাজার টাকার জরিমানার বিধান রয়েছে। তাছাড়া, অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যাবহারের জন্য প্রতি ইউনেট বিদ্যুতের মুল্য ৩ গুন হারে (পেনাল হারে) বিল প্রদান করা হবে। এছাড়াও বিদ্যুৎ ব্যাবহারের দ্বারা যদি বিদ্যুৎ সরবরাহ সংস্থার বৈদ্যতিক সরঞ্জাম,মিটার রিডিং ইউনিট ইত্যাদি ক্ষতিগ্রস্থ হয় তবে ক্ষতিগ্রস্থ বৈদ্যতিক সরঞ্জাম, মিটার রিডিং ইউনিট ইত্যাদি পুনরায় সচল করা  যাবে না এরম্নপ সরঞ্জামের জন্য পুনঃস্থাপনের ব্যয়সহ প্রকৃত মুল্য আদায় করা

 

শ্রেনী ভিক্তিক বিদ্যামান বিদ্যুতের মুল্যহারঃ

 

ক্রমিক নং

গ্রাহক শ্রেনী

প্রতি ইউনিট মুল্য (টাকায়)

 

০১।

শ্রেনী-এঃ আবাসিক

(ক) প্রখম ধাপঃ ০০ হতে ৭৫ইউনেট

(খ)দ্বিতীয় ধাপঃ ৭৬ হতে ২০০ ইউনেট

(গ)তৃতীয় ধাপঃ ২০১-৩০০ ইউনেট

(ঘ)চতুর্থ ধাপঃ ৩০১-৪০০ ইউনেট

(ঙ) পঞ্চম ধাপঃ ৪০১-৬০০ ইউনেট

(চ) ৬০০ ইউনিটের উপরে

 

৩.৮০

৪.৬৩

৪.৭৯

৭.১৬

৭.৪৮

৯.৩৮

০২।

শ্রেনী-বিঃ কৃষি কাজে ব্যবহৃত পাম্প

৩.৯৬

 

০৩।

শ্রেনী-সিঃ ক্ষুদ্র শিল্প(GP)

(ক) ফ্লাট রেট

(খ) অফ-পিক সময়ের রেট

(গ) পিক সময়ের রেট

৬.৯৫

 

 

০৪।

শ্রেনী-সি আইঃ দাতব্য

৪.৫৩

০৫।

শ্রেনী-ডিঃ অনাবাসিক (আলো ও বিদ্যুৎ)

 

 

০৬।

শ্রেনী-ইঃ বানিজ্যিক

(ক) ফ্লাট রেট

(খ) অফ-পিক সময়ের রেট

(গ) পিক সময়ের রেট

৯.০০

 

০৭।

শ্রেনী-এফঃ মাধ্যম চাপ(LP)

সাধারন ব্যবহার (১১ কেভি)

(ক) ফ্লাট রেট

(খ) অফ-পিক সময়ের রেট

(গ) পিক সময়ের রেট

৬.৮১

 

 

 

০৮।

শ্রেনী-জিঃ অতি উচ্চ চাপ

ক) সাধারন ব্যবহর (১৩২ কেভি)

(খ) ফ্ল্যাট রেট

প্রযোজ্য নয়

 

০৯।

শ্রেনী-এইচঃ উচ্চ চাপ

সাধারন ব্যবহার (৩৩ কেভি)

(ক) ফ্লাট রেট

(খ) অফ-পিক সময়ের রেট

(গ) পিক সময়ের রেট

প্রযোজ্য নয়

১০।

শ্রেনী-জেঃ রাস্তার বাতি ও পাম্প

৬.৪৮

 

পিক সময়ঃ  বিকাল ৫টা থেকে রাত ১১টা পর্যমত্ম

 

অফ পিক সময়ঃ রাত ১১টা থেকে পরদিন সময় ৭ টা পর্যন্ত উপরোক্ত বিদ্যুতের মুল্যহারের সাথে নূন্যতম চার্জ, ডিমান চার্জ,সার্ভিস চার্জ ও অনান্য শর্তাবলীসহ মূল্য সংযোজন কর যথারীতি প্রযোজ্য হবে। বিদ্যুতের মূল্যহার সরকার কর্তৃক অনুমোদিত এবং পরিবর্তনয্যেগ্য।

 

 

গ্রাহক জ্ঞাতব্য বিষয়

 

সান্ধ্য পিক-আওয়ারে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হোন। আপনার সাশ্রয়কৃত বিদ্যুৎ অন্যকে আলো জ্বালাতে সহায়তা করবে।

সংযোগ বিচ্ছিন্ন এড়াতে নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করম্নন এবং সারচার্জ  পরিশোধের ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকুন।

 

বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয়কল্পে মানসম্মত এনার্জি সেভিং বাল্ব (CFL) ও  বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ব্যবহার করুন।

 

টিউব লাইটে Electronic Ballast  ব্যবহার করে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করুন।

বিদ্যুৎ একটি মূল্যবান জাতীয় সম্পদ। দেশের বৃহত্তর স্বার্থে এই সম্পদের সুষ্ঠ ও পরিমিত ব্যবহারে ভুমিকা রাখুন।

 

বৎসরামেত্ম পবিস হতে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ সংক্রান্ত প্রত্যয়ন পত্র প্রদান করা  হয়ে থাকে।

মিটার রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব আপনার। এর সঠিক সুষ্ঠ অবস্থা ও সীলসমুহের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।

 

লোড-শেডিং সংক্রান্ত তথ্য সংস্থা সমুহের ওয়েব সাইট থেকে জানা  যাবে। যদি কোন কারনে ওয়েব সাইট থেকে তথ্য না পাওয়া যায়  সে ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট এলাকার আওতাধীন কন্ট্রোল রুম/অভিযোগ কেন্দ্র থেকে জানা যাবে।

 

বিদ্যুৎ চুরি ও এর অবৈধ ব্যবহার থেকে নিজে বিরত থাকুন ও অন্যকে নিবৃত করুন। বিদ্যুৎ চুরি ও এর অবৈধ ব্যবহার রোধে আপনার জ্ঞাত তথ্য ‘‘এক অবস্থানে  সেবা কেন্দ্র ’’/অভিযোগ কেন্দ্র’’ এ অবহিত করে সহযোগিতা করা আপনার দায়িত্ব। ইদানিং একটি সংঘবদ্ধ অসাধু চক্র চালু লাইন হতে ট্রান্সফরমার, বৈদুতিক যন্ত্রপাতি অথবা তার চুরির সাথে জড়িত। সুতরাং আপনার এলাকার উপরোক্ত চুরি রোধে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করুন।

 

 

-----------